বিয়ের ১ মাসের মাথায় বাথরুমে লুকিয়ে নববধূর স’ন্তান প্রসব!

যশোরের কেশবপুরে বিয়ের মাত্র এক মাস ছয়দিনের মা’থায় স’ন্তান প্রসব করেছে এক ন’ববধূ। স’ন্তান প্রসবের পর ন’বজাতককে মে’রে ফেলার চে’ষ্টা করা হলেও শি’শুটি এখন সুস্থ রয়েছে। নিজেকে শে’ষ করে দেওয়ার চে’ষ্টাও করেছে নব’বধূ। স’ন্তান জ’ন্ম দেয়া ওই নববধূ কেশ’বপুরের বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়নের খোপদহি গ্রামের বা’সিন্দা। সে অষ্টম শ্রেণিতে পড়তো। গত বছরের ২২ সেপ্টেম্বর সাগর দাড়িই উনিয়নের শেখপুরা গ্রামের এক যুবকের স’ঙ্গে তার বিয়ে হয়। সাগরদাড়ি ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মে’ম্বার আব্দুস সবুর জানান, গত ২২ সেপ্টেম্বর

অ’সুস্থ জেনেও ভালোবেসে বিয়ে করে কিডনি দিয়ে সজিবের প্রা’ণ বাঁ’চালেন তানিয়া

তার জীবন এ এমন কিছু ঘ’টনা ঘটে গেছে তার কিছু আপনাদের সাথে শেয়ার করছি, গত ১৯/০৯/২০১৭ তে তার কিডনি ট্রান্সপ্লান্ট করায়, ট্রান্সপ্লান্টের আগে প্রায় ১.৫ বছর সে ডায়ালাইসিস করায়।ডায়ালাইসিস যে কত ক’ষ্ট সেটা আল্লাহ আর যে করে সে ছাড়া আর কেউ কল্পনা করতে পারবে না। তাকে কিডনি দিয়ে জীবন বাচিয়েছে তার প্রান প্রিয় স্ত্রী’ #তানিয়া। তানিয়ার সাথে তার পরিচয় ২০১৪ সালে ফেইসবুক,এ পরিচয় পরে ভালোবাসায় রুপ নেয়। প্রথম এ তার মা, বাবা কিডনি দিতে চাইলেও

হিরার শিকারে ৩ বোন, ভিডিও প্রকাশের পর সংসার ভাঙে ২ তরুণীর

নাম হিরা হলেও তার সব কাজ বিকৃত রুচির। গত পাঁচ বছরে বিভিন্ন কৌশলে ১১ জন কিশোরীকে ধর্ষণ করেছে এ যুবক। এমনকি সেসব দৃশ্য ধারণ করতো মোবাইলে। একই পরিবারের তিন বোন এবং আরেকটি পরিবারের দুই বোনকেও বিভিন্নভাবে কব্জা করে হিরা। হিরা সিকদারের ফাঁদে পড়া এসব মেয়ের বয়স ১২ থেকে ১৮ বছরের মধ্যে। শারীরিক সম্পর্কের সময় এসব মেয়ের অগোচরে হিরা তা মোবাইলে ভিডিও ধারণ করতেন পরবর্তীতে সেই ভিডিও দেখিয়ে তা ছড়িয়ে দেয়ার ভয়ভীতি দেখিয়ে তাদের ফের ধর্ষণ

চাকরি টাঙ্গাইলে, প্রাথমিক শিক্ষিকা থাকেন যুক্তরাষ্ট্রে

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর পৌরসভার বাওয়ার কুমারজানী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা তানিয়া রহমান তিন মাসের ছুটি নিয়ে দেড় বছর আগে আমেরিকায় পাড়ি জমিয়েছেন। এরপর নিজ থেকে আর কোন যোগাযোগ করেননি। জানা যায়, উপজেলা শিক্ষা অফিস থেকে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তা সম্ভব হয়নি। যোগাযোগ করতে না পারায় কোন পদক্ষেপ নিতে পারছে না স্থানীয় শিক্ষা অফিস। উপজেলা শিক্ষা অফিস সূত্র জানায়, তানিয়া রহমান ২০১৯ সালের ৩ জুলাই থেকে ২ অক্টোবর পর্যন্ত ব্যক্তিগত সমস্যা দেখিয়ে স্কুল থেকে

স্ত্রীকে হত্যা করে ফেসবুক লাইভে গাইলেন গান

শরীয়তপুরের ডামুড্যায় পারিবারিক কলহের জেরে আমেনা বেগম (৩৬) নামের এক গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় স্বামী নজরুল ইসলাম মাদবরকে (৪০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ১৫০ শয্যার শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড় ৯টার দিকে উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ পাড়ায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্র জানায়, ১৫ বছর আগে ইসলামপুর ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ পাড়া গ্রামের মৃত হোসেন

সন্তান কোলে নিয়ে ভিক্ষা করেই প্রতি মাসে ইনকাম প্রায় ১৯ লক্ষ টাকা এই যুবতীর

সন্তান কোলে নিয়ে ভিক্ষা করেই প্রতি মাসে ইনকাম প্রায় ১৯ লক্ষ টাকা এই যুবতীর – প্রায় মধ্য যুগ থেকেই সমাজে ধনি দরি’দ্রের আবির্ভাব। যাদের অর্থের অভাব নেই, তারা হলেন ধনি আর যাদের দিন কাটে অভাব অনটনে, তারা গরিব। জীবন চলার তাগিতে তারা এই অভাব অনটনের কাছে হার মেনে অনেক মানুষ এসে দাঁড়ায় পথে, হাত পাতে অন্য মানুষের কাছে। আমদের চারপাশে প্রায় সব জায়গাতেই এমন মানুষদের আম’রা দে’খতে পাই যারা ভিক্ষা করে দিন কাটায়। কিন্তু সব

নাতিকে ঘরে ডেকে ‘উত্তেজনাকর মূহুর্তে’ পুরুষাঙ্গ কেটে দিলেন দাদি!

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় প্রেমিক নাতির বিয়ের খবরে বেসামাল হয়ে রাতে ঘরে ডেকে পুরুষাঙ্গ কেটে দিলেন দাদি। ঘটনাটি ঘটেছে আলমডাঙ্গা উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামে। রাতেই গুরুতর রক্তাক্ত অবস্থায় নাতি মানিককে (২৭) আলমডাঙ্গা শহরের শেফা ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। কাটা পুরুষাঙ্গে ৮টি সেলাই দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামের সাজ্জাদ আলী দুই সন্তানসহ স্ত্রী শখের বানুকে (৩০) রেখে গত ১১ মাস আগে বিদেশে যান। এই সুযোগে শখের বানু প্রতিবেশি নাতি সম্পর্কের যুবক মানিকের

নাতিকে ঘরে ডেকে ‘উত্তেজনাকর মূহুর্তে’ পুরুষাঙ্গ কেটে দিলেন দাদি!

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় প্রেমিক নাতির বিয়ের খবরে বেসামাল হয়ে রাতে ঘরে ডেকে পুরুষাঙ্গ কেটে দিলেন দাদি। ঘটনাটি ঘটেছে আলমডাঙ্গা উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামে। রাতেই গুরুতর রক্তাক্ত অবস্থায় নাতি মানিককে (২৭) আলমডাঙ্গা শহরের শেফা ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। কাটা পুরুষাঙ্গে ৮টি সেলাই দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামের সাজ্জাদ আলী দুই সন্তানসহ স্ত্রী শখের বানুকে (৩০) রেখে গত ১১ মাস আগে বিদেশে যান। এই সুযোগে শখের বানু প্রতিবেশি নাতি সম্পর্কের যুবক মানিকের

তিতাস গ্যাসের পিয়ন কুমিল্লার জহিরুল ইসলামের ১০ কোটি টাকার বাড়ি!

তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির প্রায় অর্ধকোটি টাকার সরকারি পাইপসহ অন্য মালামাল অবৈধভাবে বাইরে বিক্রি করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে কয়েকজন কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে। এসব পাইপ ও মালামাল অবৈধভাবে বাইরে বিক্রি করে দিয়েই চক্রটি ক্ষান্ত হয়নি, সেই মালামাল তিতাসের স্টোরে জমা করেছে কাগজে-কলমে। পরে বিষয়টি তিতাসের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা জেনে গেলে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কর্তৃপক্ষ এখন বলছে, তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অবশ্য ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন তিতাসের এক সিনিয়র রেকর্ডকিপার মো.

যেভাবে মা’রা গেল ৩০২ কেজি ওজনের মাখন মিয়া

অ’স্বাভাবিক ওজন নিয়ে জীবন যু’দ্ধে হেরে অবশে’ষে পৃথিবী থেকে বিদায় নিলেন ৩০২ কেজি ওজনের ব্রা’হ্মণবাড়িয়ার মাখন মিয়া (৪০)। সোমবার রাত ১০টার দিকে ব্রা’হ্মণবাড়িয়া সদর জেনারেল হাসপাতালে মৃ’ত্যুবরণ করেন তিনি। মাখন মিয়া ব্রা’হ্মণবাড়িয়া পৌর শহরের দক্ষিণ মৌড়াইলের মিলন মিয়ার ছেলে। মাখন মিয়ার ওজন শুরুতে স্বাভাবিক থাকলেও পরে ধীরে ধীরে তা বাড়তে থাকে। মৃ’ত্যুকালে তার ওজন দাঁড়ায় ৩০২ কেজি। অ’স্বাভাবিক এই ওজন নিয়ে মানবেতর দিন কা’টাচ্ছিলেন মাখন মিয়া। অবশে’ষে ওজনের কারণে জীবন যু’দ্ধে হে’রে মৃ’ত্যুর কোলে ঢলে